সিনহা হত্যায় ব্যবহৃত পিস্তল বুঝে নিলেন তদন্ত কর্মকর্তা…

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খানকে হত্যায় ইন্সপেক্টর লিয়াকতের ব্যবহৃত পিস্তলটি।

পিস্তল (প্রতীকী চিত্র)।

শনিবার (২২ আগস্ট) বিকেল সাড়ে ৩টায় কক্সবাজার পুলিশ সুপার কার্যালয়ের ডিএসবি শাখা থেকে পিস্তল বুঝে নেন সিনহা হত্যা মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা র‌্যারের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. খায়রুল ইসলাম।

চিত্রঃ সংগৃহীত।

এ সময় তিনি বলেন, অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যা মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমাণ্ডে নেওয়া আসামিদের তথ্য মিলিয়ে দেখা হবে। পাশাপাশি সুষ্ঠু ও সঠিক তদন্তের স্বার্থে পরস্পরের মুখোমুখিও করা হবে।

তিনি গণমাধ্যমকর্মীদের জানান, আসামিরা জিজ্ঞাসাবাদে গুরুত্বপূর্ণ সব তথ্য দিচ্ছেন। প্রাপ্ত তথ্য একটির সঙ্গে আরেকটি মিলিয়ে দেখা হচ্ছে। তথ্যগুলো যাচাই-বাছাই করাও হচ্ছে। রিমান্ডে নেওয়া আসামিদের পৃথকভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। আবার কখনও কখনো একে অপরের মুখোমুখি করেও জিজ্ঞাসাবাদ হচ্ছে। তদন্তে প্রাপ্ত তথ্যের কোনো ঘাটতি যাতে না থাকে সেকারণেই এটা করা হচ্ছে। এছাড়া আদালতের আদেশ মতে ইন্সপেক্টর লিয়াকতের পিস্তল র‌্যাব হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।

অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহামোহাম্মদ রাশেদ খান (চিত্রঃ সংগৃহীত)।

এর আগে শনিবার দুপুরে কক্সবাজার জেলা ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট সদর হাসপাতালে গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা খায়রুল ইসলাম।

তিনি জানান, জিজ্ঞাসাবাদে গুরুত্বপূর্ণ সব তথ্য উঠে এসেছে।

এমএইচ / বিবিএন / স্টাফ রিপোর্টার।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published.