ভূজপুর থানার ওসি সহ ১ আ.লীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা চট্টগ্রামেঃ ক্রসফায়ারে হত্যার অভিযোগ

  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1
    Share

ছবিঃ ভূজপুর থানার ওসি শেখ আবদুল্লাহ

ক্রসফায়ারে হত্যার অভিযোগ ফটিকছড়ির ভূজপুর থানার ওসিসহ ৬ পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ।মামলা হয়েছে চট্টগ্রামে। বুধবার (২৬ আগস্ট) চট্টগ্রামের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট খন্দকার কৌশিক আহমেদের আদালতে মামলাটি দায়ের করেন ভূজপুর থানা পুলিশের ‘ক্রসফায়ারে’ নিহত হেলাল উদ্দিনের স্ত্রী শারমিন আক্তার। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে হাটহাজারী সার্কেলকে তদন্তের জন্য দায়িত্ব দিয়েছেন।

মামলায় অভিযুক্তরা হলেন- ভূজপুর থানার ওসি শেখ আবদুল্লাহ, ভূজপুর থানার সেকেন্ড অফিসার শাহাদাত হোসেন, এসআই রাশেদুল হাসান, এসআই প্রবীণ দেব, এএসআই কল্পরঞ্জন চাকমা এবং স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল মান্নান ওরফে কসাই মন্নান।


হেলাল উদ্দিনের স্ত্রী শারমিন আক্তার বলেন, ‘আমার স্বামী ধর্ষণের ঘটনার সঙ্গে জড়িত ছিলনা। স্থানীয় কসাই মান্নান আমার স্বামীকে ডেকে নিয়ে পুলিশে হাতে তুলে দেয়। পুলিশ আমার স্বামীকে রাতে মেরে ফেলেছে। এটি একটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড। আমি এই হত্যার বিচার চাই।’


মামলার বিষয়ে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের কোর্ট ইন্সপেক্টর সুব্রত ব্যানার্জি বলেন, ‘ভূজপুর থানার ওসির বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে সেটি শুনেছি। তবে এখনও আমার হাতে কোনো কাগজপত্র আসেনি।

তবে এর আগে আদালত থেকে স্থানীয় থানায় কোনো ইউডি মামলা হয়েছে কিনা সেটি জানতে চায় আদালত। সেটির প্রতিবেদন হাটহাজারী সার্কেল থেকে জমা দেওয়া হয়েছে।’


বাদি পক্ষের আইনজীবী জিয়াউদ্দিন বলেন, ‘আমরা মামলাটি তদন্তের জন্য র‌্যাবকে দেওয়ার আবেদন করেছি। তখন আদালত বলেছেন বিষয়টি প্রাথমিক তদন্ত শেষে র‌্যাবকে দেয়া হবে।’


অভিযোগ বিষয়ে ভূজপুর থানার ওসি শেখ আবদুল্লাহ অবশ্য আত্মপক্ষ সমর্থন করে বলেছেন, ‘চাঞ্চল্যকর এই ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্তদের ধরতে থানা পুলিশের একটি দল আঁধারমানিকের গলাচিপা এলাকায় গেলে প্রধান আসামি হেলাল গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান। তবে আদালতে মামলা হওয়ার বিষয়ে আমি কিছুই জানি না।’

বিবিএন


  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    1
    Share

Leave a Reply

Your email address will not be published.