‘মিশন ইম্পসিবল ৭’এর কাজ পুনরায় আরম্ভ, ভাড়া নিয়েছেন দুটি বড় জাহাজ।

  • 7
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    7
    Shares

করোনার এই সময়ে বিশাল বহরের শুটিং ইউনিট নিয়ে ছবি তৈরি অসম্ভব বলা চলে। এ কারণে কয়েকবার পিছিয়েছে ‘মিশন ইম্পসিবল ৭’ ছবির কাজ। কিন্তু ‘মিশন ইম্পসিবল’কে ‘মিশন পসিবল’ করতে চান ছবির নায়ক টম ক্রুজ। আর যাতে পিছিয়ে পড়তে না হয়, সে কারণে ভাড়া নিয়েছেন দুটি বড় জাহাজ।

টম ক্রুজ। ছবি:সংগৃহীত


নরওয়েতে এবারের শুটিং শিডিউল। এত বিশাল শুটিং ইউনিটের নিরাপদে থাকা–খাওয়ার জন্য দরকার আলাদা হোটেল। কিন্তু হোটেলে সামাজিক দূরত্ব কতটুকু নিশ্চিত করতে পারবেন, তা নিয়ে টমের আছে অনিশ্চয়তা। তাই ছবির কলাকুশলীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে দুটি বিশাল জাহাজ ভাড়া নিয়েছেন টম ক্রুজ।

সিনেমার সব কলাকুশলী নরওয়েতে শুটিং করার সময় এই জাহাজেই থাকবেন।

টম ক্রুজ।


ছবির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান থেকে গণমাধ্যমকে জাহাজ ভাড়া করার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। তবে এটি এখনো জানা যায়নি যে জাহাজের ক্রুরা জাহাজে এই সময়ে থাকবেন কি না।

ছবির কাজ শুরু হয়েছিল চলতি বছরের জুলাই মাসে লন্ডনে। এর মধ্যে করোনার প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় বন্ধ হয়ে যায় শুটিং। এরপর করোনার পরে আবার শুটিং শুরু হয়। কিন্তু শুটিংয়ে স্ট্যান্টম্যান আহত হওয়ায় পিছিয়ে যায় ছবির কাজ। যাতে আর পিছিয়ে না যায়, তাই এই বড় জাহাজ ভাড়া করেছেন তিনি।

ডেইলি মেইলের অনলাইন ভার্সন প্রতিবেদন করেছে, তাঁরা নরওয়ের সব কোয়ারেন্টিন নিয়ম মেনেই কাজ করবেন।

নরওয়েতে নেমেই ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সব কলাকুশলীর কোভিড–১৯ টেস্ট করতে হবে। প্রতিদিনই স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হবে। যাতে দুই মাসের শুটিং কোনো বাধা ছাড়াই অনায়াসে হয়ে যায়।

টম ক্রুজ।

এ কারণে নানা নিয়মকানুন তৈরি করা হয়েছে। তার একটি হলো, প্রোডাকশনের সঙ্গে যুক্ত কেউ–ই বাইরের কারও সঙ্গে এই সময়ে যোগাযোগ করতে পারবেন না।


আগামী ২০২১ সালে নভেম্বর মাসে ‘মিশন ইম্পসিবল সেভেন’ মুক্তি দেওয়ার পরিকল্পনা। ছবিতে টম ক্রুজকে দেখা যাবে এইএমএফ এজেন্ট ইথান হান্টের চরিত্রে। ছবিটি পরিচালনা করছেন ক্রিস্টোফার ম্যাককুয়ারি। আরও অভিনয় করছেন সাইমন পেগ, রেবেকা ফারগুসন প্রমুখ।

স্টাফ রিপোর্টার/বে অব বেঙ্গল নিউজ


  • 7
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    7
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published.