গায়ে বল মেরে বাদ পড়লেন জোকোভিচ

  • 6
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    6
    Shares

ম্যাচের আগে নোভাক জোকোভিচের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে একটা ভিডিও পোস্ট করা হলো। দেখা গেল, নিজের ফিজিও উলি’র সঙ্গে সেলফি ভিডিওতে নাচানাচি করছেন এই সার্বিয়ান তারকা।

টুর্নামেন্টে রাফায়েল নাদাল নেই, নেই রজার ফেদেরার। হাসতে হাসতে এ বছরের ইউএস ওপেন জিতে যাওয়ার কথা জোকোভিচের, সে কথা ভেবেই কী এত নির্ভার চিত্তে নাচছিলেন জোকোভিচ? হয়তো!

ঘুণাক্ষরেও যদি জানতেন যে ম্যাচের মধ্যে কী ঘটতে চলেছে, তাহলে হয়তো এত আনন্দ হতো না!

ক্যারেনো বাস্তার বিপক্ষে আনমনে দুর্ঘটনাবশত লাইন জাজকে বল দিয়ে আঘাত করে বসেন এই তারকা। ব্যস, আর তাতেই সাঙ্গ হয়েছে জোকোভিচের ইউএস ওপেন স্বপ্ন। নাদাল-ফেদেরারহীন টুর্নামেন্ট জিতে হেসেখেলে ওই দুজনের সঙ্গে গ্র্যান্ড স্ল্যামের ব্যবধান কমানোর সুযোগটাও হেলায় হারালেন।

২০০৪ সালের ফ্রেঞ্চ ওপেনের পর এই প্রথম কোয়ার্টার ফাইনালে ‘টপ থ্রি’ এর কেউই থাকবেন না।

গত রাতে ২০ তম বাছাই স্পেনের পাবলো বাস্তার বিপক্ষে শেষ আটে ওঠার লড়াইয়ে প্রথম সেটে ৬-৫ গেমে পিছিয়ে পড়ে হয়তো একটু হতাশ হয়ে পড়েছিলেন জোকোভিচ। পকেট থেকে বল বের করে ড্রপ করতে করতে হুট করে পেছনের দিকে মেরে বসেন, পেছনে যে লাইন জাজ আছেন সেটা ভুলেই গিয়েছিলেন! সোজা লাইন জাজের গলায় আঘাত করে সেই বল।

ছবি:সংগৃহীত

সঙ্গে সঙ্গে বসে পড়েন ওই নারী লাইন জাজ, তাঁর আতঙ্কিত চিৎকার শুনে সঙ্গে সঙ্গে এগিয়ে যান জোকোভিচ, ক্ষমা চান। একটু পর সুস্থ হয়ে উঠে দাঁড়ান ওই কর্মকর্তা। কিন্তু ততক্ষণে অঘটন যা ঘটার তা ঘটে গেছে।

অনেকক্ষণ ধরে টুর্নামেন্ট রেফারির সঙ্গে কথা বলেন জোকোভিচ। কিন্তু নিয়ম অনুযায়ী শাস্তি এড়াতে পারেননি তিনি, ছিটকে যান টুর্নামেন্ট থেকে। নিয়ম অনুযায়ী, কোনো খেলোয়াড় কোনো পরিস্থিতিতেই ম্যাচ কর্মকর্তা, প্রতিপক্ষ, দর্শক বা টুর্নামেন্টের এলাকার মধ্যে কাউকে শারীরিকভাবে আঘাত করতে পারবেন না।

২০২০ সালে এর আগে একটা ম্যাচও হারেননি জোকোভিচ, তার ওপরে এবার ছিলেন না নাদাল-ফেদেরার। নাদাল করোনাভাইরাসের কারণে, ফেদেরার চোটের কারণে। সুযোগটা কী হেলায় না হারালেন জোকোভিচ!

মানতেই পারছেন না জোকোভিচ।

পরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিজের আচরণের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন জোকোভিচ, ‘সম্পূর্ণ পরিস্থিতিটা আমাকে হতাশাগ্রস্ত ও বিষণ্ন করে তুলেছে। আমি ওই লাইন জাজের খোঁজ নিয়েছি, টুর্নামেন্ট কর্তৃপক্ষ বলেছে তিনি ঠিক আছে, ঈশ্বরকে ধন্যবাদ।

আমি ব্যক্তিগত গোপনীয়তার প্রতি সম্মান রেখে তাঁর নাম বলছি না। আর বাদ পড়ার ব্যাপারে বলব, আমাকে আরও উন্নত খেলোয়াড় ও মানুষ হওয়ার জন্য শিক্ষা নিতে হবে এই ঘটনা থেকে। ইউএস ওপেন টেনিস কর্তৃপক্ষ ও টুর্নামেন্টের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবার কাছে আমি আমার আচরণের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করছি। আমার দল, সমর্থক ও পরিবারের প্রতি কৃতজ্ঞ, আমাকে সমর্থন দেওয়ার জন্য। সবাইকে ধন্যবাদ, আমি অনেক দুঃখিত।’

কিছুদিন আগেই করোনাভাইরাসের নিয়ম না মেনে টুর্নামেন্ট আয়োজন করে সমালোচিত হয়েছিলেন, হয়েছিলেন করোনা আক্রান্ত। এবার ইউএস ওপেনে এসে এমন ঘটনা। দুর্দান্ত ফর্মে থাকা জোকোভিচ নিজের ক্ষতি নিজেই টেনে আনছেন বারবার।

স্টাফ রিপোর্টার/বে অব বেঙ্গল নিউজ


  • 6
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    6
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published.