পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই ভারতের পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধের সিদ্ধান্ত…

  • 13
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    13
    Shares

পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই ভারতের পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধের সিদ্ধান্তে চরম বিপাকে পড়েছেন বাংলাদেশের আমদানিকারকরা।

প্রতীকী চিত্রঃ পেঁয়াজ।

সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বিকেলে ভারতের রপ্তানি বন্ধের সিদ্ধান্তের পরপরই দেশের বাজারে হু হু করে বাড়তে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম। রাজধানী ঢাকার বাজার যেন আরও এক কাঠি সরেস। আগের মজুদের পর্যাপ্ত পেঁয়াজ দোকানে থাকার পরও এরই মধ্যে ৩৮ টাকা দরের ভারতীয় পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৫২ টাকায়। প্রভাবে দেশি পেয়াজের দাম কেজিতে ১০ টাকা বেড়ে হয়েছে ৬৭ টাকা।

এ ব্যাপারে বাজার বিশ্লেষকরা বলছেন, গেল বছর থেকে শিক্ষা নিয়ে আগে থেকেই পদক্ষেপ নেয়া উচিত ছিল সরকারের।

অন্যদিকে এমন সিদ্ধান্তের কারনে বেনাপোলের ওপারের পেট্রাপোলে আটকা পড়েছে পেঁয়াজভর্তি প্রায় দেড়শ’ ট্রাক। 

বেনাপোলের ওপারে পেট্রাপোল রপ্তানিকারক সমিতির পক্ষে ব্যবসায়ী কার্তিক ঘোষ বলেন, আমদানি বাণিজ্য শুরুর পর থেকে ২৫০ ডলারে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি হয়ে আসছে। কিন্তু বন্যার কারণে ভারতের নাসিকে পেঁয়াজের দাম বেড়ে যাওয়ায় রপ্তানিকারকরা স্থানীয় বাজারদর হিসাবে ৭৫০ ডলারের নীচে বাংলাদেশে পেঁয়াজ রপ্তানি করবে না বলে সিদ্ধান্ত নেয়। এরপর আটকে দেয়া হয় বাংলাদেশে ঢোকার অপেক্ষায় থাকা পেঁয়াজবোঝাই ট্রাকগুলো।

এছাড়া বেনাপোল কাস্টমস কমিশনার আজিজুর রহমান এবিষয়ে বলেন, ভারত কোন ঘোষণা ছাড়াই মূল্যবৃদ্ধির দাবিতে বাংলাদেশে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করে দিয়েছে। পারস্পারিক বাণিজ্যে সমঝোতার বিকল্প নেই। তারা রপ্তানি বন্ধ না করে পেঁয়াজের আমাদানিকারকদের সময় বেঁধে দিতে পারতেন। হঠাৎ নেওয়া এমন সিদ্ধান্তে বিপাকে পড়েছেন এপারের আমদানিকারকরা।

প্রসঙ্গত কৃষি বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছর উৎপাদন হয়েছে প্রায় ২৪ লাখ মেট্রিক টন। এর মধ্যে সংরক্ষণ দুর্বলতায় পচে যায় ৩০ শতাংশ যা প্রায় সাড়ে সাত লাখ মেট্রিক টন। বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য বলছে, ইতোমধ্যে ভারত থেকে ৮ লাখ মেট্রিক টনের বেশি পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে। এসব পরিসংখ্যান বলছে, দেশে পেঁয়াজের কোনো ঘাটতি নেই।

এছাড়া উল্লেখ্য গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসেও ভারতকে পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধ করতে দেখা গিয়েছিল।

ওয়াইএইচ / বে অব বেঙ্গল নিউজ।


  • 13
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    13
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published.