কোয়ারেন্টিন শর্ত ছাড়া জিম্বাবুয়ে আসবে পাকিস্তান

  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares

আগামী মাসে পাকিস্তানে গিয়ে কোনো কোয়ারেন্টিনেই থাকতে হবে না জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটারদের। পাকিস্তানে পৌঁছে করোনা পরীক্ষায় কেউ পজিটিভ হলেই শুধু তাঁকে পাঁচ দিন কোয়ারেন্টিন করতে হবে।

ছবিঃ সংগৃহীত

জিম্বাবুয়ে সরকার ক্রিকেট দলের পাকিস্তান সফরের অনুমতি দেওয়ার পরই কাল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড সিরিজের পূর্ণাঙ্গ সূচি ঘোষণা করেছে। বিশ্বকাপ ক্রিকেটের বাছাইপর্ব হিসেবে ওয়ানডে সুপার লিগে পাকিস্তানের যাত্রাও শুরু হবে এই সিরিজ দিয়ে। ৩০ অক্টোবর শুরু সিরিজের তিনটি ওয়ানডেই হবে মুলতানে। সফরে জিম্বাবুইয়ানরা তিনটি টি-টোয়েন্টিও খেলবে। ২০ ওভারের তিনটি ম্যাচই রাওয়ালপিন্ডিতে।

তারিখম্যাচভেন্যু
৩০ অক্টোবর১ম ওয়ানডেমুলতান
১ নভেম্বর২য় ওয়ানডেমুলতান
৩ নভেম্বর৩য় ওয়ানডেমুলতান
৭ নভেম্বর১ম টি–টোয়েন্টিরাওয়ালপিন্ডি
৮ নভেম্বর২য় টি–টোয়েন্টিরাওয়ালপিন্ডি
১০ নভেম্বর৩য় টি–টোয়েন্টিরাওয়ালপিন্ডি
সিরিজের সূচি

কাল এক বিবৃতিতে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) জানিয়েছে ৩২ জনের দল নিয়ে আগামী ২০ অক্টোবর পাকিস্তানে যাচ্ছে জিম্বাবুয়ে। পাকিস্তানের বিমানে ওঠার আগে একবার করোনাপরীক্ষা করা হবে জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটারদের। ইসলামাবাদ পৌঁছানোর পর আরেক দফা পরীক্ষা হবে।

ইসলামাবাদের পরীক্ষায় যারা নেগেটিভ হবেন তাঁরা সঙ্গে সঙ্গে অনুশীলনে নেমে পড়তে পারবেন। অনুশীলন কোথায় হবে তা এখনো ঠিক করতে পারেনি পিসিবি। আর যারা পজিটিভ হবেন তাঁদের পাঁচ দিনের সেলফ আইসোলেশনে পাঠানো হবে। এরপর করোনা পরীক্ষায় দুবার নেগেটিভ হলেও তাঁরা দলের সঙ্গে যোগ দিতে পারবেন।

জিম্বাবুইয়ানদের কোয়ারেন্টিনে থাকতে না হলেও কঠোরভাবেই মেনে চলতে হবে স্বাস্থ্যবিধি। সিরিজে কীভাবে জৈব-সুরক্ষিত পরিবেশ বজায় রাখা যাবে সে বিষয়ে সিরিজের আগেই ভালো ধারণা পেতে যাচ্ছে পিসিবি।

রাওয়ালপিন্ডি ও মুলতানেই এ মাসের ৩০ তারিখ থেকে ১৮ অক্টোবর পর্যন্ত বসছে পাকিস্তানের জাতীয় টি-টোয়েন্টি কাপ। জাকির খান আশাবাদী ওই টুর্নামেন্টের অভিজ্ঞতাই কাজে লাগাবেন জিম্বাবুয়ে সিরিজে।

পিসিবির আন্তর্জাতিক ক্রিকেট পরিচালক জাকির খান বলেছেন তাঁরা দেখিয়ে দিতে চান নিরাপত্তা শঙ্কা কাটিয়ে ওঠার পর স্বাস্থ্য নিয়েও কোনো ঝুঁকি নেই পাকিস্তানে, ‘২০১৯-২০ মৌসুমে শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ ও এমসিসিকে আতিথেয়তা দেওয়ার পর সফলভাবে পাকিস্তান সুপার লিগও আয়োজন নিরাপদ ও সুরক্ষিত দেশ হিসেবে পাকিস্তানের সুনাম বাড়িয়েছে। এখন (জিম্বাবুয়ে) সিরিজটা নিশ্চিত হওয়ায় এটাও প্রমাণ হলো আমরা স্বাস্থ্যগত ভাবেও নিরাপদ। কোভিড-১৯ মহামারি আমরা ভালোভাবেই উতরে গেছি।’

স্টাফ রিপোর্টার/বে অব বেঙ্গল নিউজ


  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published.