ডিসি-ইউএনওকে শাসানোয় এবার আলোচনায় সাংসদ নিক্সন চৌধুরী

  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares

ডিসি এবং ইউএনওকে গালিগালাজ করার অভিযোগে আলোচনায় ফরিদপুর ৪ আসনের সংসদ সদস্য নিক্সন চৌধুরী। এ ঘটনায় আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে মামলার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন সিইসি।

ডিসি-ইউএনওকে শাসানোয় এবার আলোচনায় সাংসদ নিক্সন চৌধুরী
প্রতীকী চিত্র।

তবে নিক্সন চৌধুরীর দাবি নেতাকর্মীদের আটক করায় নালিশ করেছেন গালিগালাজ করেন নি। জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন যদি তার বিরুদ্ধে মামলা হয় তবে ডিসি বিরুদ্ধে ও হওয়া উচিত।

এছাড়া নিজেকে ষড়যন্ত্রের শিকার বলে দাবি করেছেন নিক্সন চৌধুরী।

চলমান শুদ্ধি অভিযান এর মাঝেই আবারো আলোচনায় ফরিদপুরের রাজনীতি। গত ১০ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হয় জেলার চরভদ্রাসন উপজেলা পরিষদ উপনির্বাচন। আওয়ামী লীগ প্রার্থী মোঃ কাওসার এর পক্ষে মাঠে ছিলেন ৪ আসনের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য মুজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন ও তার কর্মীরা।

নির্বাচন চলাকালে এক কর্মীকে আটক করায় চরভদ্রাসন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কে ফোন করে কর্তব্যরত এক ম্যাজিস্ট্রেটকে নিক্সন চৌধুরী গালিগালাজ করেন বলে অভিযোগ ওঠে। এবং একটি ফোনালাপের অডিও ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

নির্বাচনের পর একদিন রাতে সমাবেশ থেকে জেলা প্রশাসক কে হুমকি দেন এই স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য।

উক্ত ঘটনার পর রোববার সভা করে অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশনের ফরিদপুর জেলা শাখা, চিঠি পাঠায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে। যাতে বলা হয় নিক্সন চৌধুরীর বক্তব্য অত্যন্ত অবমাননাকর। যা সততা ও নিরপেক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালনে প্রতিবন্ধকতা। এর সমাধানে হস্তক্ষেপ কামনা করা হয় প্রধানমন্ত্রীর।

দুপুরে আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে সিইসি নুরুল হুদা বলেন, নিক্সন চৌধুরীর বিরুদ্ধে যে অভিযোগ তা আচরণবিধির লংঘন প্রয়োজনে নেওয়া হবে আইনি ব্যবস্থা। এবং বলেন এ ব্যাপারে আইনের যে বিধি-বিধান রয়েছে তা কার্যকর হবে।

বিকেলে সংবাদ সম্মেলনে নিক্সন চৌধুরী দাবি করেন উপজেলা কর্মকর্তাকে নালিশ জানাতে ফোন দিয়েছিলেন কোন গালিগালাজ করেন নি। সুপার এডিট করে তার বক্তব্য ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে নিক্সন চৌধুরী বলেন, এই ভয়েসটা আমারই না। এই সংসদ সদস্যের দাবি ম্যাজিস্ট্রেটদের পক্ষপাতিত্বমূলক আচরণের কারণেই ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন নেতাকর্মীরা, তাদের শান্ত করতে নির্বাচনের রাতে কথা বলেন পথসভায়।

তিনি আরো বলেন, আমার কথা হল আমি যদি আইন ভঙ্গ করি তাহলে ডিসি সাহেব ও আইন ভঙ্গ করেছেন। মেনু নির্দেশক্রমে টিএনও কে বললেন এমপি সাহেবের বাসায় যান। একজন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ ৪৮ ঘন্টার মধ্যে কোন আমার বাড়িতে আসতে পারেন না।

উল্লেখ্য নিক্সন চৌধুরীর দাবি মাঠ প্রশাসনের সাথে তার নিবিড় সম্পর্ক।

ওয়াইএইচ / বে অব বেঙ্গল নিউজ / Bay of bengal news


  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    2
    Shares