চট্টগ্রামে দুর্গা পূজার শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি চলছে

  • 6
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    6
    Shares

চট্টগ্রামে দুর্গা পূজার শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি চলছে। তবে করোনার সঙ্কটের কারণে এবারে কোন জমকালো আয়োজন থাকছে না। সীমিত পরিসরে আয়োজনের উদ্যোগ আয়োজকদের। এছাড়াও মণ্ডপে মণ্ডপে জনসমাগম ও পরিদর্শনে থাকছে নানা নির্দেশনা। 

InShot 20201015 182728352
ছবিঃ চট্টগ্রামে দুর্গা পূজার শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি চলছে

তবে সংক্রমণ ঠেকাতে বাসায় বসে অঞ্জলি নেওয়ার ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে কোন কোন মণ্ডপে। এবারে মণ্ডপে স্থায়ীভাবে থাকবে না কোন পুলিশ সদস্য।  তবে সার্বক্ষণিক টহল থাকবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। 

কয়েকদিনের মধ্যে পৌঁছে যাবে মণ্ডপে মণ্ডপে দেবী দুর্গার প্রতিমা তাই এই তোড়জোড় সদরঘাটের প্রতিমা তৈরীর কারখানায়। করণা সংকটে এবার পূজা উদযাপন নিয়ে সংশয় ছিল আয়োজকদের। তবে শেষ মুহূর্তে সীমিত পরিসরে উদযাপন করার উদ্যোগ নেওয়ায় প্রতিমা তৈরীর বেশি সময় পাননি মৃৎশিল্পীরা। তারপরও নির্ধারিত সময়ে প্রতিমা সরবরাহের জোর চেষ্টা তাদের। 

চট্টগ্রামের মৃৎশিল্পী সুজন পাল সাংবাদিকদের বলেন, শেষ পর্যায়ে এসে যখন মহানগর কিংবা বিভিন্ন জায়গা থেকে অনুমতি পাওয়া যায় যে পূজা হবে তখন আমরা কাজে হাত দি। 

চট্টল মহাশক্তি সম্মিলনী মন্ডপ কমিটির সভাপতি স্বপন চৌধুরী বলেন, ভার্চুয়ালি ভিজুয়াল এফেক্ট দিয়ে যদি তারা অঞ্জলীর ব্যবস্থা করতে পারে তবে লোকসমাগম অনেক কমবে।  করোনাকালীন এই সময়ে স্বাস্থ্যবিধি অনেকাংশে মানা সম্ভব হবে।

 কেন্দ্রীয় পূজা উদযাপন কমিটি এর চট্টগ্রাম বিভাগীয় যুগ্মসাধারণ সম্পাদক শ্যামল পালিত বলেন, আমরা চেষ্টা করছি চট্টগ্রামে ভার্চুয়ালি পূজা অঞ্জলি প্রদান করার। আমরা অনেকের সাথে কথা বলেছি পূজা পরিষদ নেতাদের এই বিষয় নিয়ে তারাও ভাবছেন। 

এদিকে চট্টগ্রাম মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট চন্দন কুমার তালুকদার আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর নিরাপত্তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন।  অ্যাডভোকেট চন্দন কুমার তালুকদার বলেন তিনি তার জীবনে এই প্রথম পুলিশ বিহীন পূজা দেখতে যাচ্ছেন।  যদি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কড়া নিরাপত্তা টহল দিবেন বলছেন কিন্তু তাতে কতটুকু আমরা চিন্তামুক্ত থাকতে পারব সেটা ভাবার বিষয়। 

সিএমপি চট্রগ্রাম দক্ষিণ জোনের উপ পুলিশ কমিশনার এস এম মেহেদী হাসান বলেন, আমরা যে তৎপরতা শুরু করেছে এবং পুজোর সময় আমরা যতটুকু তৎপর থাকবো আমরা আশা করি আমরা যেকোনো ধরনের সংকট কাটিয়ে উঠতে পারব। এছাড়া আমি আশা করি এই পূজাটা আমরা খুব শান্তিপূর্ণভাবে পালন করতে পারব। 

এবার চট্টগ্রাম মহানগর ও অন্যান্য জেলার মিলে দুই হাজারেরও বেশি মন্ডবে পালিত হবে দুর্গাপূজা। 


  • 6
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    6
    Shares