বুদ্ধিজীবী সৌধে চবি ছাত্রলীগের শ্রদ্ধাঞ্জলি

বুদ্ধিজীবী সৌধে চবি ছাত্রলীগের শ্রদ্ধাঞ্জলি
বুদ্ধিজীবী সৌধে চবি ছাত্রলীগের শ্রদ্ধাঞ্জলি

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ সকালে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্যে দিয়ে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসের কর্মসূচী শুরু হয়।

আজ ১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবসে চবি ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক ইকবাল হোসাইন টিপুর নেতৃত্বে বুদ্ধিজীবী সৌধের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করে নেতাকর্মীরা।

বুদ্ধিজীবী সৌধে চবি ছাত্রলীগের শ্রদ্ধাঞ্জলি
বুদ্ধিজীবী সৌধে চবি ছাত্রলীগের শ্রদ্ধাঞ্জলি


এসময় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসাইন টিপু বলেন, ‘মহান মুক্তিযুদ্ধের শেষ দিনগুলোতে পাকিস্তানি হানাদারবাহিনী, স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তি ও তাদের দোসররা পরাজয় নিশ্চিত জেনে বাংলাদেশকে মেধাশূন্য করতে বাঙালি বুদ্ধিজীবীদের হত্যা করে। মহান মুক্তিযুদ্ধের এই পরাজিত শক্তি ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতাকে পরিবারের বেশিরভাগ সদস্যসহ হত্যা করে।

বক্তারা আরো বলেন, বুদ্ধিজীবীদের জঘন্য হত্যাকাণ্ডের মধ্য দিয়ে তারা হত্যা, ক্যু ও ষড়যন্ত্রের রাজনীতি শুরু করে। ইনডেমনিটি অর্ডিন্যান্স জারি করে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচারের পথ বন্ধ করে দেয়। পশ্চিম পাকিস্তানীরা যখন বুঝতে পেরেছিল জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে বাঙ্গালী জাতি স্বাধীনতার দ্বারপ্রান্তে পৌছেছে ঠিক তখনই স্বাধীনতা বিরোধী পাকিস্তানীরা এদেশের শ্রেষ্ঠ সন্তানদের হত্যা করার জন্য ১৪ ডিসেম্বরকে বেছে নেয়। এবং তাদের সে পরিকল্পনা অনুযায়ী বুদ্ধিজীবীদের হত্যা করা হয়।’ তিনি আরো বলেন,’ বাংলাদেশের পবিত্র মাটিতে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার শেষ হলেই শহীদ বুদ্ধিজীবীদের আত্মা শান্তি পাবে।’

এসময় সাথে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক উপ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক রকিবুল হাসান দিনার, সাবেক পাঠাগার সম্পাদক আবু বকর তোহা, ছাত্রলীগ নেতা রাজু মুন্সী , সাবেক সদস্য সাইদুল ইসলাম সাইদ , ছাত্রলীগ নেতা সাইকুল ইসলাম, সাবেক সদস্য সামসুজ্জাম সম্রাট, সাবেক সদস্য আব্দুল্লাহ আল রায়হান, ছাত্রলীগ নেতা নিয়াজ আবেদিন পাঠান,অনুপম, শাওন, রায়হান, শাহরিয়ার, পিনন সহ আরো অনেকে।

বে অব বেঙ্গল নিউজ /BAY OF BENGAL NEWS