চবিসাস এর বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত

  • 7
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    7
    Shares

IMG 20210110 WA0012

চট্টগ্রাম নগরীর বাদশা মিঞা রোডে অবস্থিত চবি চারুকলা ইনিস্টিউট মিলনায়তনে বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (চবিসাস) এর কার্যনির্বাহী কমিটি ২০১৯-২০ এর বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

শনিবার (৯ জানুয়ারি) দুপুর সাড়ে ১২টায় একই সাথে অনুষ্ঠানে বছরব্যাপী ক্যাম্পাস সাংবাদিকতায় অবদান রাখায় চার সাংবাদিককে পুরস্কৃত করেছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি (চবিসাস)। দুই ক্যাটাগরিতে (অনুসন্ধানী ও ফিচার) তাদের এ পুরষ্কার দেওয়া হয়।  

এর আগে বেলা বেলা সাড়ে ১১টায় শুরু হয় সাংবাদিক সমিতির বার্ষিক সাধারণ সভা। সভায় সাধারণ সম্পাদক প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন বিদায়ী সাধারণ সম্পাদক জোবায়ের চৌধুরী ও অর্থ সম্পাদকের প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন বিদায়ী অর্থ সম্পাদক মুনাওয়ার রিয়াজ মুন্না। পরে প্রতিবেদনের উপর আলোচনা করেন সমিতির সদস্যরা।

বার্ষিক সাধারণ সভায় চবি সাংবাদিক সমিতির সভাপতি আব্দুল্লাহ আল ফয়সালের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক জোবায়ের চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতার। আরও বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর ড. রবিউল হাসান ভূঁইয়া, যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সভাপতি ড. শহিদুল হক, আইসিটি সেলের পরিচালক ড. মুহাম্মদ খায়রুল ইসলাম, সমিতির সাবেক সভাপতি সুজন ঘোষ, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল হক রুবেল, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন টিপু ও শাখা ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি গৌরচাঁদ ঠাকুরসহ আরও অনেকে। অতিথিরা বর্ষ সেরা প্রতিবেদকদের হাতে সম্মাননা সূচক ক্রেস্ট ও সনদপত্র তুলে দেন।

পুরস্কারপ্রাপ্তরা হলেন, অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে বাংলা নিউজ ২৪ডটকমের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি মুহাম্মাদ আজহার ও ডেইলি বাংলাদেশ পোস্টের প্রতিনিধি মাহবুব এ রহমান এবং ফিচার প্রতিবেদনে দৈনিক পূর্বকোণের প্রতিনিধি রায়হান উদ্দিন ও দৈনিক আজাদীর প্রতিনিধি ইমাম ইমু।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে চবি উপাচার্য বলেন, সাংবাদিকরা সবার আগে আমার ছাত্রছাত্রী। সাংবাদিকতা বিষয়ের প্রতি আমার দূর্বলতা সবসময়ই ছিলো। কারণ আমি বাংলার ছাত্রী হলেও আমার কাছে মনে হয় বাংলা আর সাংবাদিকতা দুটি বিষয় একে অন্যের পরিপূরক। কারণ সাংবাদিকতা করতে আসলে বাংলা ভাষা সম্পর্কে ভালো জ্ঞান থাকতে হবে। সাহিত্য না জানলে তুমি ভালো লিখতে পারবে না। লেখার ভেতরে মাধুর্য থাকবে না।

উপাচার্য বলেন, আমরা জানি সাংবাদিকতা মহান পেশা। তোমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্পণ। তোমরা যা বলবে তা সারা জাতি জানবে, সরকার জানবে। তাই তোমাদের বস্তুনিষ্ঠ হওয়া বেশি জরুরি। সাংবাদিকদের কাজ সত্য তুলে ধরা। কারো ভাবমূর্তি নষ্ট করতে সাংবাদিকতা নয়। আমি আশা রাখি তোমরা সত্যকে তুলে ধরবে। বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতাই হবে তোমাদের লক্ষ। কাউকে ফোকাস করা বা কারো পেছনে লাগা নয়। আশাকরি তোমারা তোমাদেরকে সেইভাবে গড়ে তুলবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর বলেন, সাংবাদিকরা হলো জাতির আয়না। সাংবাদিকদের লেখার মধ্যে দায়িত্ববোধ থাকতে হবে। কারণ একটা সংবাদ শুধু বিশ্ববিদ্যালয়ে সীমাবদ্ধ থেকে না, তাই তাদেরকে দায়িত্ববান হতে হবে। সংবাদ হবে সংশোধনের জন্য, পিছে লাগার জন্য নয়।

এছাড়া অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন চারুকলা ইনিস্টিউটের পরিচালক ড. প্রণব মিত্র, অতীস দিপংকর হলের প্রোভোস্ট ড. রেজাউল করিম, সহকারী প্রক্টর রিফাত রহমান এবং চবিসাসের সাবেক সভাপতি হুমায়ুন মাসুদ, আব্দুল্লাহ আল ফারুক, আবু বকর সিদ্দিক রাহাত, সৈয়দ বাইজিদ ইমন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক তাসনীম হাসান ও সহ-সভাপতি মাসুদ ফারহান অভি ও সাবেক অর্থ সম্পাদক এফএম মিজান।

বে অব বেঙ্গল নিউজ / BAY OF BENGAL NEWS


  • 7
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    7
    Shares