বোলারদের জন্য ‘ফ্রি বল’ চান অশ্বিন

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

বোলার ‘নো বল’ করলে ব্যাটিং দল পায় ‘ফ্রি হিট।’ নন-স্ট্রাইক প্রান্তের ব্যাটসম্যান যখন লাইন ছেড়ে বেরিয়ে যান বোলার বল করার আগেই, তার জন্য কি শাস্তি? রবিচন্দ্রন অশ্বিনের চাওয়া, বোলিং দলকে তখন দেওয়া হোক ‘ফ্রি বল’, যে বলে ব্যাটসম্যান আউট হলে কাটা যাবে ৫ রান।

ছবি:সংগৃহীত


অশ্বিনের এই প্রস্তাবের সূত্রপাত ‘মানকাডিং’ বিতর্ক থেকে। নন-স্ট্রাইক প্রান্তের ব্যাটসম্যান যদি আগেই এগিয়ে যান, তখন তাকে রান আউট করার নিয়ম ক্রিকেটে আছে। ক্রিকেটে এটি পরিচিত ‘মানকাড’ আউট বলে। অনেকেই এটিকে মনে করেন ক্রিকেটের চেতনার পরিপন্থী। আবার উল্টো মতও আছে। যেটা নিয়মে আছে, সেটা কেন চেতনার বিরোধী হবে, এই প্রশ্ন তোলার লোকেরও অভাব নেই। সব মিলিয়ে এই বিতর্ক অনেক পুরোনো।


অশ্বিনের সঙ্গে এই বিতর্কের সংযোগ তিনি এভাবে আউট করেছেন এবং বরাবরই এটির পক্ষে সোচ্চার বলে। আইপিএলের গত আসরে রোমাঞ্চকর এক ম্যাচে রাজস্থান রয়্যালসের ব্যাটসম্যান জস বাটলারকে ‘মানকাড’ আউট করেন কিংস এলেভেন পাঞ্জাবের হয়ে খেলা অশ্বিন। তখন এটি নিয়ে আলোচনা হয়েছে তুমুল। হয়েছে পরেও।

কয়েক দিন আগে, আরেক ভারতীয় ক্রিকেটার ও কলকাতা নাইট রাইডার্সের অধিনায়ক দিনেশ কার্তিক বলেছেন, তিনি এটিকে আর সব আউটের মতোই দেখেন এবং তার দলের কেউ এই আউট করলে আপত্তি নেই।


যথারীতি কার্তিকের কথা নিয়েও চলছে আলোচনা। এই কিপার-ব্যাটসম্যান সোমবার টুইটারে অশ্বিন, হার্শা ভোগলে, রোহান গাভাস্কার, ব্রেন্ডন ম্যাককালাম, আকাশ চোপড়া, সঞ্জয় মাঞ্জরেকার, সুব্রামানিয়াম বদ্রিনাথদের ট্যাগ করে জানতে চেয়েছেন মতামত। সেটির প্রেক্ষিতেই অশ্বিন টুইটে জানালেন তার অভিনব ভাবনা।


“ বোলারদের জন্য ফ্রি বলের নিয়ম করা হোক। ওই বলে যদি ব্যাটসম্যান আউট হয়, তাহলে ব্যাটিং দলের ৫ রান কাটা হবে। ফ্রি হিট ব্যাটসম্যানদের সহায়তা করে, বোলারদেরও সুযোগ দেওয়া হোক। এখনও পর্যন্ত মানুষ খেলা দেখে এই আশায় যে, ‘আজ বোলাররা বিধ্বস্ত হবে।”


অশ্বিন এবার আইপিএলে খেলবেন দিল্লি ক্যাপিটালস দলে। এই দলের কোচ ও সাবেক অস্ট্রেলিয়া অধিনায়ক রিকি পন্টিং কয়েক দিন আগে বলেছেন, তিনি ‘মানকাড’ আউট চান না এবং এটা নিয়ে অশ্বিনের সঙ্গে জোর আলোচনা করবেন। তবে অশ্বিন টুইটে আরও একবার বুঝিয়ে দিলেন তার মনোভাব।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published.