৪২ কোটি টাকা ওনার একাউন্টে পাওয়া গিয়েছে – দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

ছবিঃ সংগৃহীত। (শহীদ ইমরোজ খালিদী,সম্পাদক,বিডি জিউজ টোয়ান্টিফোর)

বুধবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চে হাজির হয়ে বিডি নিউজ টয়ান্টিফোর এর সম্পাদক তৌফিক ইমরোজ খালিদী, তার বিরুদ্ধে করা দূর্নীতি দমন কমিশনের মামলার আগাম জামিনের আবেদন করেন। এরপর আদালত তার আবেদনের শুনানি নিয়ে তাকে আট সপ্তাহের জামিন মঞ্জুর করেন।

এসময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, এরকম একটি অভিযোগ যে দুদক আনতে পারে এটা আমাকে এত হতভাগ করেছে এত বিষ্মিত করেছে যে, আমার মনে হলাও ওরা(দুদক) যেকোন কিছু করতে পারে। আমি হয়তবা ঘরে শুয় আছি হঠ্বৎ করে এরেস্ট করতে পারে, তাও নন এভাইলেবল।

তিনি অভিযোগের দিকে তাকিয়ে দেখতে বলেন, যা নাকি পুরোপুরি ভুলে ভরা।

আদালত চত্বরএ দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান বল্রব, তিনি যে বলছেন উদ্দেশ্য প্রণোদিত কিন্তু তা মোটেও না। কেননা দূর্নীতি দমন কমিশন পাব্লিক ডকুমেন্ট ও ব্যাংক স্টেটমেন্ট এর ভিত্তিতে জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পত্তির মামলা করেছেন।

ছবিঃ খুরশীদ আলম খান (দুদকের আইনজীব) সংগৃহীত।

তিনি আরও বলেন, কেন দূর্নীতি দমন কমিশব একজন জার্নালিস্টের বিরুদ্ধে মামলা করবে। ৪২ কোটি টাকা ওনার একাউন্টে পাওয়া গিয়েছে। এটার কোন এক্সপ্লেনেশন উনার কাছে নেই।

গত ৩০ জুলাই দুদকের উপ-পরিচালক গুলশান আনোয়ার প্রধান দুর্নীতি দমন কমিশনের সমন্বিত জেলা কার্যালয়-১-এ তৌফিক ইমরোজ খালিদীর বিরুদ্ধে মামলা করেন। ২০০৪ সালের দুর্নীতি দমন কমিশন আইনের ২৭ (১) ধারায় করা মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, তৌফিক ইমরোজ খালিদী চারটি ব্যাংকের বিভিন্ন হিসাবে ৪২ কোটি টাকা জমা রেখেছেন, যার ‘বৈধ কোনো উৎস’ দুদক পায়নি। এছাড়া, ‘ভুয়া কাগজপত্র সৃষ্টি করে অবৈধ প্রক্রিয়ায় প্রতারণার মাধ্যমে’ ওই অর্থ অর্জন করা হয়েছে বলেও মামলায় অভিযোগ করা হয়।

ডব্লিউ বি বি ও/ বিবিএন/স্টাফ রিপোর্টার


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published.